|

বাংলাদেশ করোনা
মোট আক্রান্ত

৪০০,২৫১

সুস্থ

৩১৬,৬০০

মৃত্যু

৫,৮১৮

  • জেলা সমূহের তথ্য
  • ঢাকা ১১৭,২৭০
  • চট্টগ্রাম ২০,৬৭২
  • বগুড়া ৭,৯৯১
  • কুমিল্লা ৭,৮৬১
  • সিলেট ৭,৪৪২
  • ফরিদপুর ৭,৩৭৭
  • নারায়ণগঞ্জ ৭,০৭০
  • খুলনা ৬,৫৮৯
  • গাজীপুর ৫,৬৪৪
  • নোয়াখালী ৫,০৭৪
  • কক্সবাজার ৫,০৩৩
  • যশোর ৪,০৬৯
  • ময়মনসিংহ ৩,৭৯৭
  • বরিশাল ৩,৭৪৮
  • মুন্সিগঞ্জ ৩,৬৫৭
  • দিনাজপুর ৩,৫৮৬
  • কুষ্টিয়া ৩,৪১৫
  • টাঙ্গাইল ৩,২৬২
  • রাজবাড়ী ৩,১৫৪
  • রংপুর ২,৯৮৮
  • কিশোরগঞ্জ ২,৯৮০
  • গোপালগঞ্জ ২,৬৫০
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২,৪৯২
  • নরসিংদী ২,৪২৩
  • সুনামগঞ্জ ২,৩৮৮
  • চাঁদপুর ২,৩৫৩
  • সিরাজগঞ্জ ২,২৪২
  • লক্ষ্মীপুর ২,১৯১
  • ঝিনাইদহ ২,০৪১
  • ফেনী ১,৯৩৬
  • হবিগঞ্জ ১,৮০২
  • মৌলভীবাজার ১,৭৭২
  • শরীয়তপুর ১,৭৬৯
  • জামালপুর ১,৬৪৪
  • মানিকগঞ্জ ১,৫৬৩
  • চুয়াডাঙ্গা ১,৪৯৯
  • পটুয়াখালী ১,৪৯৫
  • মাদারীপুর ১,৪৯০
  • নড়াইল ১,৩৮৯
  • নওগাঁ ১,৩৪১
  • গাইবান্ধা ১,২১২
  • ঠাকুরগাঁও ১,২০৮
  • পাবনা ১,২০৩
  • নীলফামারী ১,১৪৫
  • জয়পুরহাট ১,১২৬
  • সাতক্ষীরা ১,১০৮
  • পিরোজপুর ১,১০৪
  • রাজশাহী ১,০৮৫
  • নাটোর ১,০৩৩
  • বাগেরহাট ১,০১১
  • মাগুরা ৯৪০
  • বরগুনা ৯২৮
  • রাঙ্গামাটি ৯২৬
  • কুড়িগ্রাম ৯২৫
  • লালমনিরহাট ৮৯৩
  • বান্দরবান ৮০৪
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৭৮২
  • ভোলা ৭৬৯
  • নেত্রকোণা ৭২৯
  • ঝালকাঠি ৭২৩
  • খাগড়াছড়ি ৭১০
  • পঞ্চগড় ৬৬২
  • মেহেরপুর ৬৪৮
  • শেরপুর ৪৯৬
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট
“কওমী বাগান” সংস্কার আন্দোলনের মাঝপথে দাড়িয়ে কিছু আত্মোপলব্ধি

প্রকাশিতঃ ৭:৪৬ অপরাহ্ন | জুলাই ৩০, ২০২০

উসামা মুহাম্মাদের আইডি থেকে : গত ২৫ থেকে ২৮ তারিখ পর্যন্ত প্রায় টানা ৩ দিন নানা নাটয়ীকতার পর প্রতিবাদী সৈনিক, চলমান শুদ্ধি আন্দোলনের সহযোদ্ধা প্রিয় আশরাফ মাহদী ভাইয়ের টেম্পরারি জামিন (আইনের ভাষায় অন্তর্বতীকালীন জামিন) লাভের পর আমাদের কেউ কেউ যেন অতি আনন্দে আত্মহারা হয়েগেছি!

না, আমরা আনন্দিত তবে অতি আনন্দিত নই। তারুণ্যের বাঁধভাঙ্গা প্রতিবাদী স্রোতের সামনে অন্যায়কারী ও কুচক্রী মহলটি নানা নাটকীয়তার পর কৌশল পরিবর্তন করে বাহ্যিক স্তমিত হলেও বানোয়াট মিথ্যা মামলাটি কিন্তু প্রত্যাহার করেনি এখনও, আমাদের গলায় রশি বেঁধে ওরা এটা নিয়ে ঘৃণ্য খেলার স্বপ্ন বুনে আজও।

খেলছে কারা?
– খেলছে তারাই যারা কওমী অঙ্গনের চূড়ান্ত ধ্বংস করে হলেও নিজের দুনিয়াবী চাহিদার ষোলকলা পূরণ করে আখের গোছাতে ব্যস্ত, সব কাজ ওরা করে কওমীর লেবাসে, সব অনৈতিক ফায়দা লুটে কওমীর নাম ব্যবহার করে।

ওদের নামকি! ওরা কারা?
– হ্যাঁ, ফিল্ড ওয়ার্কার থেকে নিয়ে প্ল্যানিং মেকার পর্যন্ত জড়িত প্রত্যেক ব্যাক্তির নাম, সংস্থা ও অর্থযোগানদাতা কোনকিছুই আমাদের জানার বাহিরে নয়।
অত্যন্ত গোপনীয়ভাবেই ওরা সব আঞ্জাম দেয়, ওদের প্রতিটি স্তরে রয়েছে সহযোগিতার জন্য বিভিন্ন স্তরের শক্তিশালী বাহিনী, বিপরীতে আমাদের বাহ্যিক কিছুই নেই তবে আল্লাহর বাহিনী তো রয়েছে, হক্বের পথে থাকলে তাঁর গায়েবী মদদ তো বারবার পরীক্ষিত ই।
সেই গায়েবী মদদেই বাহ্যিক কোন ধরনের ফোর্স ছাড়াই আমাদের কাছে পৌঁছে যায় ভয়ঙ্কর থেকে ভয়ঙ্কর সব তথ্যাবলী।

এ যাবত কতবার কৌশল চেঞ্জ করেছে তা বর্ণনাতীত।
হাটহাজারী, বেফাক, ফরিদাবাদ কিংবা কারো বাড়ি যেখানেই ষড়যন্ত্রের বৈঠক কায়েম করেছে সব বৈঠকের নথি আলাপন কোন না কোনভাবে পৌঁছে যায় আলহামদুলিল্লাহ্, এটাই খোদায়ী নুসরত।

সর্বশেষ গতকাল এমপির বাসায় হওয়া গোপন বৈঠকটিও সংবাদ প্রচার মাত্রই আযান শুনে শয়তান যেমন পিছনের রাস্তা দিয়ে হাওয়া ছাড়তে ছাড়তে দৌড়ে পালাতে শুরু করে তেমনি তারাও সেভাবে তাৎক্ষনিক সব ফেলে পালিয়েছে।

চুনেপুটি থেকে রথী মহারথি যাদের নামই ইতিপূর্বে বিভিন্ন লেখায় উচ্চারণ করেছি কারো গতিবিধি আমাদের নেটওয়ার্কের বাহিরে নয়।
কে কোথায় কখন কাকে কি জন্য ফোন্ করছে? তাও কোন না কোনভাবে জানতে পারছি।
রাজপথের কথিত গলাফাটানো বীর (!) ফয়জুল্লাহ সেদিনের মামলাকারী মৃত কাশেম পুত্র ও রুহীর নিরাপত্তার জন্য অসহায়ত্ব প্রকাশ করে কার কাছে কিভাবে সাহায্য চেয়েছে তাও জানা।
কোন্ ছ্যাঁচড়া সাহেবযাদা দেশ বরেণ্য আলেমদের কাকে কিভাবে জেরা করেছে সেটিও কানে পৌঁছেছে।
কোন্ আল্লামার বেশধারী কাকে ফোন্ করে উস্কানি দিয়েছে কোন্ ভাষায় বলেছে সবকিছুই আমাদের হাতে রয়েছে।

কোন্ কোন্ প্রতিষ্ঠান বেফাক ছেড়ে বের হয়ে পত্রিকার পাতায় বেফাকের ভাঙ্গন শিরোনামে হাইলাইট হতে চায় সেটাও কানে আসছে!
অতীতে নিজেদের চাহিদা মোতাবেক সিদ্ধান্ত না হওয়ায় বেফাক হাইয়া ছেড়ে যাওয়ার হুমকির নথিপত্রও হাতে রয়েছে।

তবে রণকৌশল হিসাবে আপাতত সবকিছু স্পষ্ট প্রকাশ থেকে বিরত থাকাটাই সমীচিন মনে করি। অতীত বাদ -ই দিলাম, সাম্প্রতিক যে সব জঘণ্য আচরণ তারা বরেণ্য আলেমগনের সাথে করেছে তা শুনলে গাঁ শিউরে উঠবে, কতটা বজ্জাত ওরা, এই বেয়াদব বে-শরম গুলো আবার হাইআ’ বেফাকের মিটিং এ এসে গলাবাজী করে আমাদের মুরুব্বীদের সাথে!

সরকার যদি ওদের কূটচাল অনুধাবন করতে পারতো তাহলে ক্যাসিনোকান্ডে সম্রাট – শামীমদের আগে ওদেরকে ধরতো! অথবা সরকারের কাছে সব রেকর্ডই আছে, ওদেরকে এখন কিছু সুযোগ দিয়ে চূড়ান্ত ধরাশায়ী করার অপেক্ষা করছে শুধু!
আমাদের পূর্ণ বিশ্বাস ওদের দূর্নীতি ও কূটচালনীতিকে সরকারও বুঝে না বুঝার ভান করে আর কি একটু দৌড় দেখার জন্য!

কেউ যদি এ ইস্যুতে ভাঙ্গনের ইতিহাস তৈরী করতে চায় তাহলে নিজের পায়ে যেন নিজেই কুড়াল মারবে, কারণ প্রজন্ম এখন আদর্শ খুঁজে, আট-দশ তলা ভবন নয়, গাছতলায় পেলেও হয়।

পরিশেষে তরুণ প্রজন্মের প্রতি আহ্বান:

বন্ধু! এ লড়াইয়ের শিকড় অনেক গভীরে, গভীরের গভীরতা কল্পানারও বাহিরে! ওরা যেমন কওমী অঙ্গনের শত্রু তেমনি এ দেশ ও মাতৃভূমির অস্তিত্ব ও স্বাধীনতার ভয়ঙ্কর শত্রু। এ অপশক্তির বিরুদ্ধে তারুণ্যের আত্মরক্ষার লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে, এটা অস্তিত্বের লড়াই, শতশত বছরের ঐতিহ্য এ কওমী অঙ্গনের ভীতকে চূড়ান্তরূপে ধ্বসিয়ে দেয়ার প্ল্যানকে রুখে দিতে হবে। বুকে সাহস নিয়ে বুদ্ধিবৃত্তিক কৌশলে এ লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।

এ লড়াইয়ের ময়দানে যে কোন ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্ততি নিয়েই নেমেছি আলহামদুলিল্লাহ্, আমি এক উসামাকে বন্দী করলেই যে থেমে যাবে সব, এমন মনকলা খেয়ে এখন লাভ নেই, তারুণ্যের বাগানে হাজারো উসামা জীবন দিয়ে এ সংগ্রাম অব্যাহত রাখতে প্রস্তত ইনশাআল্লাহ্।

এ পথ খুব মসৃণ নয়, এ পথ এমন নিরাপদ কোন পথ নয় যে, নীরবে খেয়ে পড়ে আল্লাহ্কে ডেকে জান্নাতের টিকেট কনফার্ম (!) করা যাবে, এ পথে টিকে থাকতে হলে প্রতি ক্ষণে মৃত্যু পরওয়ানা নিয়ে বাঁচতে হয়, বেচে থাকার আশা ছেড়ে দিতে হয়। বাঁচা-মরা একমাত্র রব্বে কারীমের ফায়সালা এই ই’তিকাদ নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে মোদের, সাথে সবচে’ বেশী জরুরী হলো অতীত ভুলের জন্য ইস্তিগফার ও শেষ রাত্রির কান্না। তবেই চূড়ান্ত সফলতা পদচুম্বন করবে ইনশাআল্লাহ্।

লেখক ফেইজবুক আইডি : 𝑼𝒔𝒂𝒎𝒂 𝑴𝒖𝒉𝒂𝒎𝒎𝒂𝒅

দেখা হয়েছে: 113
The use of this website without permission is illegal. The authorities are not responsible if any news published in this newspaper is defamatory of any person or organization. Author of all the writings and liabilities of the author

সম্পাদকঃ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক
সহ-সম্পাদকঃ মোহাম্মদ আবদুল আউয়াল
নির্বাহী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৯১৯-৯১৭৫৬৪
ই-মেইলঃ shimantosangbad@gmail.com
অস্থায়ী কার্যালয়ঃ হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা-১৩৪০।